বর্তমান আমরা সবাই কম বেশি মোবাইল ফোন ব্যবহার করি।তবে সবার হাতেই একটি করে মোবাইল ফোন রয়েছে। আর সবাই একটি বা দুটি সিম কার্ড ব্যবহার করে। কেনোনা সি কার্ড ছাড়া মোবাইল ফোন একেবারেই আচল বলা চলে। আমরা যদি কোনো ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করি কম সময়ের মধ্যে তাহলে দেখা যায় যে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে। তার কারণ হলো দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করতে হলে অবশ্যই আমরা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তাদের সাথে যোগাযোগ করে থাকি।আর এই যোগাযোগ করার জন্য আমাদের মোবাইল ফোন প্রয়োজন হয় শুধু তাই নয় এতে সিম কার্ডের ও গুরুত্বপূর্ণ অনেক বেশি কারণ সিম কার্ড ছাড়া কোনো ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করতে পারবো না।যোগাযোগ করার জন্য মোবাইল ফোনের সাথে সিম কার্ড ও অবশ্যই প্রয়োজন।

আজকের আর্টিকেল টি হলো আপনার হাতে থাকা অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে যে,, SIM Card,, রয়েছে সেটি যদি আপনি,, লক,, না করেন তাহলে আপনি যে যে বিপদে পড়তে পারেন।তবে আপনারা কম বেশি সবাই জানে যে SIM PIN এবং SIM Lock কি এই বিষয় প্রায় সকল মানুষেই জানেন কিন্তু বেশি ভাগ মানুষের কাছে এই বিষয়টি খুবই সাধারণ মনে হয়ে থাকে।তার কারন হলো যে আপনি যদি আপনার মোবাইল ফোনের সিম কার্ড টি লক না করে থাকেন তাহলে আপনি কিছু বিপদের সম্মুখীন হতে পারেন।

আরও পড়ুন

গুগল ড্রাইভের ডিলিট হয়ে যাওয়া ছবি ফিরিয়ে আনার উপায়

JAA লাইফস্টাইল লগইন এবং রেজিস্ট্রেশন

কীভাবে আপনার ইকমার্স স্টোর বিপণনের জন্য ইউটিউব ব্যবহার করবেন?

তাহলে চলুন বন্ধুরা আজের মতো শুরু করা যাক,

কেনো আপনারা সিম কার্ড লক করবেন?

বর্তমান আমাদের মোবাইল ফোনে এখন সব কিছু রয়েছে। তবে আমরা আমাদের মোবাইল ফোনের সিকিউরিটি নিয়ে অনেক বেশি চিন্তিত থাকি। আর আমরা সবাই এই চিন্তা করি সেটা হলো আমাদের মোবাইল ফোনের সিকিউরিটি, পিন লক বা ফিঙ্গারপ্রিন্ট ও পেটার্ন লক, এবং ফেস লক, টার্চ লক ইত্যাদি এ সব ব্যবহার করে থাকি আমরা সাধারণত। তো এটা করার কারন হলো যে যদি মোবাইল ফোন টি কখনো যদি হারিয়ে যায় কেউ যেনো এটা সহজে ব্যবহার করতে না পারে আর সেই জন্য অনেকেই আমরা আমাদের মোবাইল ফোনের লক করে রাখি।কিন্তু সেই চুরি হওয়া মোবাইল ফোনটির সিম কার্ড টি সে অন্য কারো মোবাইল ফোনে তুলে সে ব্যবহার করতে পারে।আবার আপনার সিম কার্ড দিয়ে যদি ইমু,ফেসবুক, নগদ,বিকাশ ইত্যাদি অ্যাকাউন্ট খোলা থাকে তাহলে কিন্তু সে নিচিন্তে ব্যবহার করতে পারবে।এটা কিন্তু মারাত্মক ক্ষতি কর বিষয়।

তো এটা চিন্তার বিষয় কারণ যদি আপনার সিম কার্ড টি যদি লক করা না থাকে তাহলে যে ওই সিম কার্ড টি চুরি করবে সে আপনার সিম কার্ড টি ব্যবহার করতে পারবে।তার কারণ আপনি যদি পর পর তিন বার ভুল পিন কোড দিলে আপনার সিম কার্ড টি লক হয়ে যাবে।তিন বার ভুল পিন কোড দেওয়ার পরে আপনার সিম কার্ড টি লক হয়ে যাবে আর সে আনলক করতে হলে পাক কোড অবশ্যই লাগবে।

আর পাক কোডের নাম্বার টা শুধু মাএ থাকবে আপনার কাছে। তাহলে আপনার লক করা সিম কার্ড টি সে ব্যবহার করতে পারবেন না।

আপনার সিম কার্ড লক করবেন যেভাবে পারেন,

তবে একটি কথা সরণ রাখবেন যে একেকটা মোবাইল ফোনের সেটিংস সিস্টেম কিন্তু একেক রকম।সেই জন্য আপনাকে এই সব সেটিংস গুলো খুঁজে বের করতে হবে।

১. আপনার মোবাইল ফোনের সিম কার্ড টি লক করার জন্য সর্ব প্রথমে আপনার মোবাইলের সেটিং অপশনে যাবেন।

২. তারপর,, Biometrics of Security,,নামে অপশনে ক্লিক করবেন।

৩. এরপর আপনি ঠিক একটু নিচে,,Other Security Settings,, অপশনে ক্লিক করবেন।

৪. একটু নিচে আসার পরে আপনি ওখানে দেখতে পারবেন,,Set up Sim Card Lock,, এ ক্লিক করবেন।একটি সিম কার্ড থাকলে একটা দেখাবে আর যদি আপনার ফোনে দুটি সিম থাকলে দুটি দেখাবে।

৫. এরপর ঠিক এই অপশনে ক্লিক করবেন।

৬. আর ওই অপশনে ক্লিক করার পরে পিন কোড চাইবে। তবে একটা কথা আপনি যখন একটা সিম কিনবেন ঠিক তখন সিম কার্ডের পিন কোড ও আরেকটি কোড থাকবে পাক কোড থাকবে।

৭. সেখানে আপনি পিন কোড দিবেন, আর পিন কোড দিয়ে ওকে করবেন

তবে আপনি যদি আপনার মোবাইল ফোন টি রিস্টার্ট দেন তাহলে কিন্তু পিন কোড চাবে।আর আপনি যদি অন্য ফোনে সিম কার্ড টি প্রবেশ করেন তাহলে ও পিন কোড চাবে।তখন আপনি পিন দিয়ে আপনার সিম টি ব্যবহার করতে পারবেন। তবে এক টা কথা আবারও বলে রাখি যে সবার মোবাইল ফোনের সেটিংস কিন্তু এক নয়।সেক্ষেএে আপনাকে খোঁজে বের করতে হবে।

কিভাবে আপনি,, Sim Card Lock,, করতে পারেন। তবে বেশির ভাগের ক্ষেত্রে কম বেশি সবাই জানে যে 1234 পিন কোড থাকে। আর এতো কিন্তু নিরাপদ নয়।তাই আপনা কে অবশ্যই পিন কোড চেঞ্জ করতে হবে।না হলো চোর তো চুরি করার পরে 1234 অবশ্যই চিষ্টা করবে।তাই অবশ্যই আপনাকে আপনার সিমের পিন কোড টি চেঞ্জ করতে হবে।

যেভাবে আপনারা সিম কার্ডের পিন চেঞ্জ করবেন;

৮. প্রথমে,, Change Sim card pin,, অপশনে ক্লিক করবেন।

৯. এরপর সেখানে আপনার আগে দেওয়া পিন কোড টি দিয়ে Ok করবেন।

১০. তারপর আপনি সেখানে নতুন যে পিন কোড টি দিতে চান সেটাওখানে বসিয়ে Ok করে দিবেন।

১১. আবার উপরে যে নতুন পিন কোড দিয়েছেন সেটি আবার দিয়ে কনফার্ম করে Ok তে ক্লিক করবেন।

১২. তারপর দেখুন Sim pin Changed successfully দেখাবে।

এরপর আপনার কাজ শেষ। তবে আপনি যদি ওই সিম কার্ড টি ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনার মোবাইল ফোন টি রিস্টার্ট দিবেন।দেওয়ার পরে কিন্তু সিম পিন দিয়ে ব্যবহার করতে পারবেন।

তবে পর পর তিন বার যদি আপনি পিন ভুল করেন তাহলে কিন্তু আপনাকে অবশ্যই পাক কোড দিয়ে আনলক করতে হবে। আর এই পাক কোড টি আপনি কোথায় পাবেন।আর সে আমি আগেই বলে রেখেছি।

সব চেয়ে বড় কথা হলো যে আপনি যদি পর পর 10 বার ভুল পাক কোড বসান তাহলে কিন্তু আপনার সিম কার্ড টি Disable হয়ে যাবে।তবে সিম যদি Disable হয়ে যায় তাহলে করণী কি আমি সেটা বলছি।যদি কোনো কারণে মনে করেন আপনার সিম কার্ড টি Disable হয়ে যায় তাহলে ওই সিমের কোম্পানির কাস্টমার কেয়ারে ফোন দিতে হবে।যে কারো মোবাইল ফোন দিয়ে কল দিবেন , তার কারণ আপনার সিম তো Disable হয়ে আছে। তবে কাস্টমার কেয়ার থেকে ভেরিফাই করার পরে ওরা আপনাকে একটা পাক কোড দিয়ে দিবে আর সেটা দিয়ে আপনি আপনার সিম আনলক করে নিতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.